গঙ্গাস্নানে পুণ্য হয়, কেন এই বিশ্বাস অটুট ভক্তদের?

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: December 13, 2021 7:16 pm
  • Updated: December 13, 2021 7:16 pm

তাঁর পবিত্র স্পর্শে মুছে যায় সমস্ত কলুষ। তিনি পতিতোদ্ধারিণী। পুণ্যদায়িনী দেবী গঙ্গা। আমাদের সনাতন ধর্মাচরণের সংস্কৃতিতে দেবী গঙ্গা আছেন বিশেষ স্থানে। পুজো-আচ্চায় গঙ্গাজল আজও লাগে। মনে করা হয়, গঙ্গাজলই সমস্ত অপবিত্রকে পবিত্র করে তুলতে পারে। এই যে বিশ্বাস, তার কারণ জানতে হলে আমাদের চোখ রাখতে হবে পৌরাণিক আখ্যানে। আসুন, শুনে নিই।

যে কোনও শুভ কাজ আরম্ভে একটু গঙ্গাজল ছিটিয়ে নেওয়াই আমাদের রীতি। আমাদের বিশ্বাস তাতে সমস্ত কিছু শুদ্ধ হয়ে পূজার্চনার উপযোগী হয়ে ওঠে। গঙ্গাজলে শুদ্ধতার প্রতি এই বিশ্বাসের কারণেই ভক্তেরা গঙ্গাস্নান করেন। মনে করা হয়, বহু পুজোপাঠ, মন্ত্রোচ্চারণে যে ফল লাভ করা যায়, সেই একই ফল লাভ করা যায় গঙ্গাস্নানেই।

আরও শুনুন: গীতার অমূল্য জ্ঞানরাশি অর্জুনের আগে আর কাকে কাকে বলেছিলেন শ্রীকৃষ্ণ?

এই যে বিশ্বাস তার গোড়াটা কোথায়? পৌরাণিক কাহিনির ভিতরেই আছে এর উত্তর। ঋগ্বেদে আছে গঙ্গার উল্লেখ। স্কন্দপুরাণ ও ব্রহ্মবৈবর্ত পুরাণেও আমরা দেবী গঙ্গাকে দেখতে পাই। আর মহাভারতে দেবী গঙ্গার মর্ত্যে আগমনের যে অনুষঙ্গ আমরা পাই, তা রাজা সগরের কাহিনি। ষাট হাজার সন্তানের জনক ছিলেন তিনি। একবার তিনি অশ্বমেধ যজ্ঞের আয়োজন করেন। কিন্তু ইন্দ্র সেই অশ্ব চুরি করে নেন। তখন রাজা সগর তাঁর সন্তানদের অশ্বের খোঁজে পাঠান। ষাট হাজার সন্তান তন্নতন্ন করে খুঁজতে থাকেন অশ্বটিকে।

আরও শুনুন: পুজোর সময় কেন আরতি করা হয়? কী এর তাৎপর্য?

একদিন তাঁরা দেখতে পান মহর্ষি কপিলের আশ্রমে অশ্বটি রয়েছে। কপিল তখন ধ্যানমগ্ন। এদিকে অশ্বটিকে যে তাঁদের দরকার। সেই সঙ্গে মনে সন্দেহ জাগছে, কপিল মুনিই কি অশ্বটিকে চুরি করে এনে এখানে রেখেছেন। সাত পাঁচ ভাবতে ভাবতেই তাঁরা মুনির ধ্যান ভঙ্গ করলেন। আচমকা ধ্যানভঙ্গ হওয়ায় ভয়ানক ক্রুদ্ধ হলেন কপিল মুনি। আর তৎক্ষণাৎ অভিশাপ দিয়ে সগর রাজার সন্তানদের ভস্ম করে দিলেন। পারলৌকিক ক্রিয়া না হওয়ায় তাঁরা প্রেত হয়ে আবদ্ধ থেকে গেলেন। সগর রাজার উত্তরপুরুষ ভগীরথ যখন এ কথা জানতে পারলেন, তখন ভারি কষ্ট পেলেন তিনি। কী করে পূর্বপুরুষের মুক্তি হয়, এই ভাবনা ভাবনা ভাবতে ভাবতে তিনি জানতে পারলেন দেবী গঙ্গাকে যদি মর্ত্যে আনা যায়, তবে তিনি যা চাইছেন তা সম্ভব। ভগীরথ তখন ব্রহ্মার স্তব শুরু করলেন। তাঁর স্তবে সন্তুষ্ট হয়ে ব্রহ্মা জানান, দেবী গঙ্গাকে মর্ত্যে প্রবাহিত হবেন।

আরও শুনুন: স্বর্গের সিংহাসন পেয়েও কেন পতন হয়েছিল রাজা নহুষের?

কিন্তু হেন প্রস্তাবে ভারী অসম্মানিত বোধ করলেন স্বয়ং গঙ্গা। তিনি ঠিক করলেন, গোটা মর্ত্যকে তাঁর স্রোতে প্লাবিত করবেন। গঙ্গার এই ক্রোধহেতু প্রলয় আসন্ন হয়ে উঠল। ভগীরথ তখন শরণ নিলেন দেবাদিদেব মহাদেবের। ভগীরথের বন্দনায় সন্তুষ্ট হয়ে মহাদেব তখন গঙ্গাকে ধারণ করলেন নিজের জটায়। আর তারপর সেই ধারাকে প্রবাহিত করলেন মর্ত্যে।

বাকি অংশ শুনে নিন। 

আরও শুনুন
why did it take three years for people to realize that Joyce Vincent had died

৩ বছর আগে মৃত্যু তরুণীর, টের পাননি কেউই, পুলিশ দেখেছিল টিভির সামনে বসে কঙ্কাল…

রহস্যজনক মৃত্যুর কারণটা কী? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

21 January 2022: Listen to this podcast for mental piece and tranquility

শ্রীরামকৃষ্ণের দাস (পর্ব ৭): ঠাকুরকে গুরু হিসাবে মেনে নিতে সম্মত হলেন নরেন্দ্রনাথ

নরেন্দ্রনাথ ক্রমশ যেন চিনতে পারছেন ঠাকুরকে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

News Bulletin: Current News for the day of 31 July 2021

31 জুলাই 2021: বিশেষ বিশেষ খবর- BJP ছাড়লেন Babul Supriyo, জিইয়ে রাখলেন অন্য দলে যোগের জল্পনা

রাজ্যে চালু হল ‘উৎসশ্রী’ পোর্টাল। শুনে নিন আজকের বিশেষ বিশেষ খবর। 

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
Goddess Manasa is worshipped in Bengal in a festival 'Ranna pujo'

রান্নাপুজো: বাংলার নিজস্ব এই সংস্কৃতির ধারা আজও বইছে ঘরে ঘরে

বাংলার এই নিজস্ব আচারের গল্প শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

once upon a time Bengal celebrates new year in 'Agrahayan'

বৈশাখ নয়, সেকালে বাংলার নববর্ষ শুরু হত অগ্রহায়ণেই

কেন অগ্রহায়ণ মাসকে নববর্ষ বলে ধরা হত? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Spiritual talk for daily life and for calm mind | Bangla Podcast

Spiritual: শাস্ত্রমতে কে আসলে প্রকৃত ধার্মিক? কী তাঁর নিত্যকর্তব্য?

ধর্মকে অনুসরণ করে কীভাবে কেউ হয়ে উঠতে পারেন প্রকৃত ধার্মিক?

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Don't keep these foods in refrigerator, says expert

এই খাবারগুলি ফ্রিজে রাখেন! ভুলেও এই ভুল করবেন না

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো