স্বর্গের সিংহাসন পেয়েও কেন পতন হয়েছিল রাজা নহুষের?

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: December 2, 2021 8:23 pm
  • Updated: December 2, 2021 8:23 pm

পুরাণে আছে রাজা নহুষের কাহিনি। মহাভারতেও আমরা তাঁর উল্লেখ পাই। যোগ্য ব্যক্তি হিসাবেই একসময় স্বর্গের শাসনভার পেয়েছিলেন তিনি। আবার কৃতকর্মের জন্য সেখান থেকে তাঁর পতনও হয়। আর এই গল্পের মধ্যেই লুকিয়ে আছে দুটি গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা, যা আমাদের জীবনকেও আলো দেখায়। আসুন শুনে নিই রাজা নহুষের উপাখ্যান।

সেবার ইন্দ্র বধ করেছেন ত্রিশিরাকে। ত্রিশিরা মানে যাঁর তিনটি মাথা। এই ত্রিশিরা ছিলেন অত্যন্ত শক্তিশালী। ইন্দ্রের অস্ত্রের আঘাতে তিনি ধরাশায়ী হলেন ঠিকই, কিন্তু ইন্দ্র নিশ্চিত হতে পারলেন না আদৌ ত্রিশিরার মৃত্যু হয়েছে কিনা। তখন এক ইন্দ্র এক ছুতারকে অনেক করে অনুনয় করলেন। যেন তিনি তাঁর কুঠার দিয়ে ত্রিশিরার মুণ্ডচ্ছেদ করেন। প্রথমে নিমরাজি হলেও ছুতার শেষমেশ ইন্দ্রের কথায় ত্রিশিরার মাথা ধড় থেকে আলাদা করে দিল। এদিকে ত্রিশিরার মৃত্যু হয়েছে শুনে ভয়ানক ক্রুদ্ধ হলেন তাঁর বাবা ত্বষ্টা। এমনিতেই ইন্দ্রের সঙ্গে তাঁর পূর্বশত্রুতা ছিল। ইন্দ্রই যে ত্রিশিরাকে বধ করেছে তা জানতে তাঁর বাকি থাকল না। তখন তিনি তাঁর ঐশী ক্ষমতাবলে তৈরি করলেন এক দৈত্যকে। তার নাম বৃত্র।

আরও শুনুন: কেন নৃসিংহ অবতার ধারণ করেছিলেন ভগবান বিষ্ণু?

তার উপর দায়িত্ব পড়ল ইন্দ্রকে সংহার করার। যেমন কথা তেমন কাজ। শুরু হয়ে গেল স্বর্গে বৃত্রের তাণ্ডব। একসময় তো দৈত্য ইন্দ্রকে গিলেও ফেলল। অনেক কষ্টে দেবতারা বিশেষ অস্ত্র প্রয়োগ করে ইন্দ্রকে বের করলেন, আর ইন্দ্র স্বর্গ থেকে পালিয়ে প্রাণে বাঁচলেন। এই বৃত্র দৈত্যকেও অবশ্য শেষমেশ খানিকটা কৌশলেই বধ করেন ইন্দ্র। তাও দেবতাদের সঙ্গে সন্ধিস্থাপনের পর। ইন্দ্র বুঝতেই পারছিলেন যে, এর ফলে তাঁর নিজেরও পাপ হয়েছে। ত্রিশিরাকে বধ আর তারপর বৃত্রের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা- এর দরুন যে পাপ হয়েছে, সেই ভয়ে ইন্দ্র নিজেকে জলের ভিতর লুকিয়ে ফেললেন।

আরও শুনুন: ‘বিদ্রোহী ভৃগু’ কেন ভগবানের বুকে এঁকে দিয়েছিলেন পদচিহ্ন?

স্বর্গ তখন হয়ে পড়ল রাজাহীন। নানা বিপর্যয় এল নেমে। কিন্তু এভাবে তো আর চলতে পারে না! একজন সর্বগুণসম্পন্ন ব্যক্তিকে স্বর্গের দায়িত্ব দেওয়া হবে বলে ঠিক করা হল। তিনি-ই হলেন রাজা নহুষ। নিজের যোগ্যতাবলে স্বর্গের সিংহাসন অধিকার করলেন তিনি। এইখান থেকেই শুরু হল কাহিনির নতুন মোড়। স্বর্গের রাজা হয়ে নহুষের মাথা গেল ঘুরে। অহংকার পেয়ে বসল তাঁকে। উদ্ধত হলেন তিনি। একদিন তিনি চাইলেন, স্বর্গের রানি শচী দেবী যেন পদসেবা করেন। এ প্রস্তাব শুনে শচী দেবী যারপরনাই ক্ষুব্ধ হন। গোপনে তিনি ইন্দ্রের সঙ্গে দেখা করেন আর তারপর এক কৌশল করেন। শচী দেবী নহুষকে জানান, যদি তাঁকে একটা উপযুক্ত পালকি করে নহুষ নিয়ে যেতে পারেন, তবে তিনি পদসেবায় রাজি। কেমন পালকি? না, যে পালকির বাহকরা হবেন তপস্বী মুনীরা।

বাকি অংশ শুনে নিন। 

আরও শুনুন
Woman gets married to 'PINK' colour

প্রিয় রংয়ের সঙ্গেই সাতপাকে বাঁধা পড়লেন কনে, দেখে অবাক অতিথিরা

কোথায় ঘটল এমন আশ্চর্য ঘটনা? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Muslim resident of Jamia Nagar move to court to save a temple

এটাই আসল ভারতবর্ষ… এলাকার হিন্দু মন্দির বাঁচাতে আদালতের দ্বারস্থ মুসলিম বাসিন্দারা

মন্দির বাঁচাতে আদালতের দ্বারস্থ মুসলিমরা।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Spiritual: The importance of 'ekadashi' in Hindu Philosophy

Spiritual: শাস্ত্রমতে কেন একাদশী গুরুত্বপূর্ণ তিথি?

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
Short Audio Story: Kolkata is called city of lottery | Sangbad Pratidin Shono

Kolkata : কলকাতা নাকি লটারির শহর! কেন জানেন?

কলকাতা শহরের বহু বিশিষ্ট জিনিসের নেপথ্যেই আছে লটারি থেকে পাওয়া অর্থ। কীভাবে কলকাতা হয়ে উঠল লটারির শহর?

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

How Cellophane paper was invented? listen to this podcast to know that story

ভাগ্যিস টেবিলের উপর উলটেছিল খাবারের বাটি! তাতেই জন্ম হল সেলোফেন পেপারের

মজার সেই গল্প শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Know the story Of ‘Bear Man of India’

বন্যপ্রাণীদের বাঁচানোই নেশা, সরকারও স্বীকৃতি দিয়েছে দেশের ‘বিয়ার ম্যান’-কে

কীভাবে বন্ধ করলেন ভাল্লুক-খেলার প্রথা? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

the story behind the celebration of Dhanteras

ধনতেরসে সোনা কেনার রীতির নেপথ্যে আছেন এক নারী? শুনে নিন সেই গল্প

মাতৃপূজার ক্ষণে স্বীকৃতি দেওয়া হয় এক নারীর বুদ্ধিমত্তাকেও। শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো