14 জুলাই 2021: বিশেষ বিশেষ খবর – রাজ্যে বন্ধই থাকছে লোকাল ট্রেন, শর্তসাপেক্ষে চালু মেট্রো পরিষেবা

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: July 14, 2021 8:56 pm
  • Updated: August 11, 2021 3:06 pm
News bulletin

রাজ্যে বন্ধই থাকছে লোকাল ট্রেন, চলবে মেট্রো। দার্জিলিং সফরেও বাধ্যতামূলক কোভিড টেস্টের রিপোর্ট। কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মচারীদের বর্ধিত মহার্ঘ ভাতার হার ২৮ শতাংশ। রবিনসন স্ট্রিট কাণ্ডের ছায়া বাগবাজারে। শুনে নিন আজকের বিশেষ বিশেষ খবর।

হেডলাইন:

বিস্তারিত খবর:
১।
এখনই ছাড় নয় লোকাল ট্রেন চলাচলে। বুধবার নবান্ন থেকে জারি হওয়া নতুন নির্দেশিকায় এমনটাই জানাল রাজ্য। তবে চালু হবে মেট্রো। সপ্তাহে ৫ দিন ৫০ শতাংশ যাত্রী নিয়ে মেট্রো চলাচলে ছাড় দেওয়া হয়েছে। শনি ও রবিবার অবশ্য আমজনতার জন্য বন্ধ থাকবে মেট্রো পরিষেবা।

করোনা সংক্রমণ রুখতে রাজ্যে জারি কড়া বিধিনিষেধ। এবার তার মেয়াদ বাড়ল ৩০ জুলাই পর্যন্ত। সংক্রমণ বৃদ্ধির কথা মাথায় রেখেই স্টাফ স্পেশাল ছাড়া লোকাল ট্রেন এখনই চালু করা হচ্ছে না। এদিকে বন্ধ থাকছে স্কুল, কলেজ- সহ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং সিনেমা হল। রাজ্য, জাতীয় কিংবা আন্তর্জাতিক স্তরের সাঁতারুদের জন্য সুইমিং পুল সকাল ৬ টা থেকে বেলা ১০ পর্যন্ত খোলা থাকতে পারে। ব্যাংক ও অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে ১০টা থেকে ৩ টে পর্যন্ত। সারাদিন খোলা থাকবে দোকান-বাজার। তবে কর্মচারী থাকবে ৫০ শতাংশ। একবারে ৫০ শতাংশ গ্রাহক দোকানে আসতে পারেন। রাত ৯টা থেকে সকাল ৫টা পর্যন্ত যান চলাচলের উপর নিয়ন্ত্রণ জারি থাকছে।
পুরনো নিয়ম মেনেই চলবে শ্যুটিং। অডিও রেকর্ডিং করতে স্টুডিওতে সর্বাধিক ১০ জন থাকতে পারেন।

মার্চ মাস থেকেই রাজ্যে ঊর্ধ্বমুখী ছিল করোনার গ্রাফ। মে মাসে ক্ষমতায় ফেরার পরে সংক্রমণে লাগাম পরাতে রাজ্যে জোরালো পদক্ষেপ রাজ্য সরকার। ধীরে ধীরে পরিস্থিতির উন্নতির পর থেকে ধাপে ধাপে রাজ্যে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফেরানোর চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার। সেই উদ্দেশ্যে কমবেশি ১৫দিন অন্তর জারি হচ্ছে নয়া নির্দেশিকা। ১৫ জুলাই শেষ হচ্ছে চলতি নির্দেশিকার মেয়াদ। ফলে ১৬ তারিখ থেকে নয়া নিয়নকানুন কার্যকর হচ্ছে রাজ্যে।

২।

দ্রুত রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ড যুক্ত করার নির্দেশ। জেলাশাসকদের বেঁধে দেওয়া হল নির্দিষ্ট সময়সীমা। ২৫ জুলাই থেকে এ ব্যাপারে বিশেষ উদ্যোগ নেবে জেলা প্রশাসন। জানানো হয়েছে, গ্রাহকের বাড়িতে পৌঁছে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে বায়োমেট্রিক ডেটা সংগ্রহ করা হবে। রেশন কার্ডের সঙ্গে যুক্ত করা হবে সেই তথ্য। ১০ আগস্টের মধ্যে এই প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে হবে। না হলে নিকটবর্তী স্কুল, আইসিডিএস সেন্টার বা নির্দিষ্ট সরকারি অফিসে গিয়ে কাজ শেষ করতে হবে গ্রাহকদের। খাদ্য এবং খাদ্য সরবরাহ দপ্তরের তরফে এই কাজের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ওয়েবেলকে।

মঙ্গলবার ‘দুয়ারে রেশন’প্রকল্প নিয়ে জেলাশাসকদের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্যের মুখ্যসচিব এইচ কে দ্বিবেদী। খাদ্য দপ্তর সূত্রে খবর, সাড়ে চার কোটি গ্রাহকের সংযুক্তিকরণের কাজ শেষ। আগস্টের মধ্যে নথিভুক্ত হবে প্রায় ১০ কোটি গ্রাহকের নাম। প্রতিদিন ১০ লক্ষ গ্রাহককে নথিভুক্ত করার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। ‘খাদ্যসাথী’ প্রকল্পেও প্রতিদিন সাড়ে সাত লক্ষ মানুষের রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার লিংক করা হচ্ছে।
রাজ্যের দুঃস্থ মহিলাদের স্বনির্ভর করার কর্মসূচি ‘মাতৃবন্দনা’ নিয়েও আলোচনা হয় এদিনের বৈঠকে। নতুন গোষ্ঠীগুলিকে পাঁচ বছরে ২৫ হাজার কোটি টাকা ঋণ দেওয়া হতে পারে বলে নবান্ন সূত্রে খবর।

আরও শুনুন: 13 জুলাই 2021 : বিশেষ বিশেষ খবর- রাহুল গান্ধী-প্রশান্ত কিশোর বৈঠক, মহাজোটের জল্পনা তুঙ্গে

৩।
রাজধানী দিল্লিতেও এবার পালিত হতে চলেছে তৃণমূলের ‘শহিদ দিবস’। ২১ জুলাই তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাষণ পৌঁছবে দিল্লিতেও, জানালেন তৃণমূলের রাজ্যসভার মুখ্য সচেতক সুখেন্দুশেখর রায়।
গত বছর কোভিডবিধি মেনে তৃণমূলের শহিদ দিবস পালিত হয়েছিল বুথে বুথে। তৃণমূল নেত্রী নিজের বক্তব্য রেখেছিলেন কালীঘাটের দলীয় কার্যালয় থেকে। এবারও শহিদ দিবসের অনুষ্ঠান হবে ভারচুয়ালি। তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক বৈঠক করে আগেই এ কথা ঘোষণা করেছিলেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মঙ্গলবার তৃণমূলের তরফে টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেও একই বার্তা দেওয়া হয়। যেখানে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, করোনার কাঁটা এখনও দূর হয়নি। তাই সতর্ক থাকতে হবে। ভারচুয়ালিই প্রতিটি ব্লকে ২১ জুলাই পালিত হবে।
সেই সময় সংসদের বাদল অধিবেশন চলবে। ফলে লোকসভা ও রাজ্যসভার বেশ কয়েকজন তৃণমূল সাংসদ দিল্লিতেই থাকবেন। অনুষ্ঠানে তাঁদের শামিল করার জন্য দিল্লির তৃণমূল দপ্তরে একটি LED স্ক্রিন লাগানোর পরিকল্পনা রয়েছে। তবে একুশের নির্বাচনে বিরাট জয়ের পর দিল্লিতে তৃণমূল সুপ্রিমোর ভারচুয়াল উপস্থিতিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছে রাজনৈতিক মহল। এতে বৃহত্তর রাজনৈতিক লক্ষ্যপূরণের ইঙ্গিতও রয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

৪।

রবিনসন স্ট্রিট কাণ্ডের ছায়া এবার ফিরল বাগবাজারে। এক বৃদ্ধের পচাগলা প্রায় কঙ্কাল হয়ে যাওয়া মৃতদেহ আগলে বসে রয়েছেন স্ত্রী ও মেয়ে। প্রায় জোর করেই সেই দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠাল পুলিশ। তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে কলকাতার বাগবাজারে নিয়োগী ঘাট স্ট্রিটে।

এই ঘটনায় ২০১৫ সালের রবিনসন স্ট্রিট কঙ্কাল কাণ্ডের ছায়া দেখছেন অনেকেই। জানা যাচ্ছে, মৃত বৃদ্ধ প্রাক্তন নাট্যকর্মী। নাম দিগ্বিজয় ঘোষ। পুলিশের ধারণা, প্রায় দু’মাস আগে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। তিনতলা বাড়ির উপরের তলার বাসিন্দা ছিলেন বৃদ্ধ। সঙ্গে থাকতেন তাঁর স্ত্রী ও বিবাহবিচ্ছিন্না মেয়ে। বৃদ্ধের মৃতদেহ ঘরে রেখে সে ঘরেই তাঁরা খাওয়াদাওয়াও করতেন। বাড়ির দরজা জানালা ভিতর থেকে বন্ধ ছিল। কাউকে ঢুকতে দেওয়া হত না। কিন্তু উলটোদিকের বাসিন্দারা মঙ্গলবার পচা গন্ধ পান। সন্দেহের বশে তাঁরাই পুলিশকে খবর দেন।
ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে মৃত্যুর কারণ পরিষ্কার হবে। মানসিক কোনও রোগের জন্যই মেয়ে ও স্ত্রী এভাবে মৃতদেহ আগলে রেখেছিলেন কি না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

৫।

এবার দার্জিলিং সফরেও বাধ্যতামূলক করা হল কোভিড টেস্টের রিপোর্ট। শান্তিনিকেতন তারাপীঠের পাশাপাশি দীঘা, মন্দারমণি, তাজপুরের জন্যও চালু হয়েছিল এই নিয়ম। সেই তালিকায় যোগ হল দার্জিলিং। কোভিড টেস্টের রিপোর্ট অথবা ভ্যাকসিনের দুটো ডোজ নেওয়ার সার্টিফিকেট দেখাতে না পারলে এবার দার্জিলিংয়ের হোটেলে প্রবেশের অনুমতি পাবেন না পর্যটকরা। বুধবারই এই নির্দেশ দিয়েছেন জেলা শাসক।

ধীরে ধীরে রাজ্যে কমছে সংক্রমণ। তবে এখনও বেশ কয়েকটি জেলায় ঊর্ধ্বমুখী গ্রাফ। তার মধ্যেই রয়েছে দার্জিলিং। কমবেশি প্রতিদিনই প্রায় ৭০ জন সংক্রমিত হচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধ খানিকটা শিথিল হতেই দার্জিলিংয়ে পাড়ি দিচ্ছেন ভ্রমণপিপাষুরা। যা বাড়াচ্ছে সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা। সেই কারণেই এবার কড়া পদক্ষেপ করল দার্জিলিং জেলা প্রশাসন। বুধবার সাংবাদিক বৈঠক করে জেলাশাসক জানিয়েছেন, দার্জিলিং পৌঁছনোর ৭২ ঘণ্টা আগের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট অথবা ভ্যাকসিনের দুটো ডোজ নেওয়ার সার্টিফিকেট না থাকলে কোনও পর্যটককে হোটেলে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া যাবে না। কঠোরভাবে পালন করতে হবে কোভিড বিধি। সচেতন করতে হবে আমজনতাকে।

আরও শুনুন: 12 জুলাই 2021 : বিশেষ বিশেষ খবর – দিঘা, মন্দারমণি সফরে এবার বাধ্যতামূলক Covid Test রিপোর্ট

৬।
বিহার এবং উত্তরপ্রদেশের যাত্রীবোঝাই ট্রেনে বোমা হামলার ছক কষছে পাক গুপ্তচর সংস্থা ISI। এমনটাই দাবি করল ভারতের গোয়েন্দা বিভাগ। ইতিমধ্যেই রেলের তরফে বিহার এবং উত্তরপ্রদেশ পুলিশকে সতর্ক করা হয়েছে। সতর্ক করা হয়েছে রেল পুলিশের আধিকারিকদেরও। গোয়েন্দা সূত্রের খবর, পাঞ্জাবের স্লিপার সেলগুলিকে এই কাজে লাগাতে চাইছে ISI। উত্তরপ্রদেশ এবং বিহার থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে অন্যান্য রাজ্যে যায় একাধিক ট্রেন। এই ট্রেনগুলিই হামলার নিশানা বলে মনে করছেন গোয়েন্দারা। বিস্ফোরণ ঘটলে বহু মানুষের মৃত্যুর সম্ভাবনা রয়েছে। দেশের আইনশৃঙ্খলার ওপরেও তার প্রভাব পড়বে। গোয়েন্দা দপ্তরের থেকে খবর পেয়ে রেল পুলিশের তরফে সতর্ক করা হয়েছে এসপি, এসডিপিও, এসএইচও এবং আউটপোস্ট ইনচার্জদের। পুলিশ কর্মী, বম্ব স্কোয়াড এবং পুলিশ কুকুরদের দলকেও সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মূলত যে যে জেলাগুলিতে হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে, সেগুলি হল বেগুসরাই, জামুই, জাহানাবাদ, নাওয়াদা, ভোজপুর, বক্সার, চান্দাউলি, গাজিপুর ইত্যাদি। এই জেলাগুলির স্থানীয় প্রশাসনকে বাড়তি সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

৭।
কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর। মহার্ঘ ভাতা বা DA বৃদ্ধির প্রস্তাবে ছাড়পত্র দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা আগে ১৭ শতাংশ পর্যন্ত DA পেতেন। ১১ শতাংশ বাড়িয়ে তা করা হল ২৮ শতাংশ। এর ফলে লক্ষ লক্ষ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারী এবং পেনশনভোগী উপকৃত হবেন। গত একবছর ধরেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ডিএ বৃদ্ধির ব্যাপারটি আটকে ছিল। করোনা মহামারীর জন্য বেতন কমিশনের প্রস্তাব সত্ত্বেও গত একবছরেরও বেশি সময় ধরে সেই প্রস্তাবে ছাড়পত্র দেয়নি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। এই একবছরে অন্তত ৩ বার ডিএ বৃদ্ধির প্রস্তাব আসে। সেই ৩ বারের হিসাব যোগ করেই এককালীন ১১ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। এই বৃদ্ধির ফলে যারা এতদিন ১৭ শতাংশ পর্যন্ত DA পেতেন, তাঁরা একলাফে ২৮ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা পাবেন। যদিও, এই বর্ধিত DA কবে থেকে কার্যকর হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে সেপ্টেম্বর থেকেই বর্ধিত মহার্ঘ ভাতা পেতে পারেন সরকারি কর্মী এবং পেনশনভোগীরা। তবে, এই প্রস্তাবের এখনও বেশ কিছু জায়গায় ছাড়পত্র পাওয়া বাকি। সেক্ষেত্রে সেপ্টেম্বর থেকে নতুন হারে DA পাওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে,নতুন ডিএ যেদিনই কার্যকর হোক না কেন, কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ১ জুলাই থেকেই এরিয়ার পাবেন বলেই জানা যাচ্ছে।

 

 

আরও শুনুন
21 July: Historical importance of this day in Bengal

Mamata Banerjee: ২১ জুলাইয়ের সমাবেশ একটা রেকর্ড, কেন জানেন?

একজন নেত্রী একার কৃতিত্বে প্রতিবছর একই দিনে বিশাল বিশাল সমাবেশ করে চলেছেন, মানুষ একইভাবে তাঁর সভায় আসছে, এটা রেকর্ড।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Actress Swastika Mukherjee Counters Body shaming

‘সবরকম শরীরই সুন্দর’, ছবি পোস্ট করে কেন এই কথা বললেন Swastika Mukherjee?

নেটিজেনের মন কেড়েছে স্বস্তিকার কোন বক্তব্য? শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

How an American Walter Hunt invent safety pin for paying his loan back

Safety Pin আবিষ্কারের এই গল্প আপনাকে অবাক করবে

প্রতিদিনের দরকারে লাগে সেফটি পিন। কীভাবে আবিষ্কার হয়েছিল এই জিনিসের! শুনে নিন প্লে বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
Symptoms and treatments of body dysmorphic disorder

Body dysmorphia: নিজের চেহারা নিয়ে মাত্রাতিরিক্ত খুঁতখুঁতে স্বভাব কী অসুখ জেনে রাখুন

কী এই বডি ডিসমরফিয়া? শুনুন প্লে বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Spiritual: the nobility of chanting Chandipath and how it comes to the world

Spiritual: জগতে চণ্ডীপাঠের মাহাত্ম্য প্রচার করলেন কে?

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Lionel Messi Joins PSG: A paradigm Shift in the world of Football

Lionel Messi: শিল্পের শহরে এবার শিল্পীর পায়েই আঁকা হবে ফুটবলবিশ্বের নতুন ছবি

কতখানি রং হারাবে লা লিগা? শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Former Afghan policewoman recounts Taliban attack on her

মেয়ের চোখ খুবলে নিয়েছে তালিবান, সব জেনেও মুখে কুলুপ বাবার

কতটা নিষ্ঠুর হতে পারে তালিবান, শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো