প্রশ্নোপচার (পারিবারিক হোমিও চিকিৎসায়)

Published by: Susovan Pramanik |    Posted: April 1, 2021 4:06 pm|    Updated: April 1, 2021 4:06 pm

Published by: Susovan Pramanik Posted: April 1, 2021 4:06 pm Updated: April 1, 2021 4:06 pm

এগিয়ে এসো, জিভটা দেখি

এবার বলো—ব্যাপারটা কী?

ক্রিমির জন্যে কষ্ট পাচ্ছো?

খাচ্ছো দাচ্ছো শুকিয়ে যাচ্ছো?

তা, এতদিন করছিলে কী?

করাচ্ছিলে অ্যালোপ্যাথি?

কি আর বলব—কর্মফল!

তাই এতদিন দাওনি কল।

 

যাক্গে তবু ভাগ্যি ভাল!

সময় থাকতে খেয়াল হল।

আমার কাছে এই যে এলে

হোমিওপ্যাথির শরণ নিলে

বাঁচার মতো বাঁচতে পাবে;

কিন্তু আয়ু থাকলে তবে।

 

এসব কথা আসছে কেন?

ভয় পেয়োনা, বলছি শোনো—

অ্যালোপ্যাথির অহংকার

স্যন্টোনাইন, অ্যান্টিপার।

থাবড়া মেরে আরাম করে

গোবদ্যিদের পকেট ভরে।

রোগীর কেবল অর্থক্ষয়

জীবনশক্তি জখম হয়।

এবং এই যে জীবনশক্তি!

ফুরিয়ে গেলেই জীবের  মুক্তি

যতই কেন ওষুধ খাও

ঠাকুর ঘরে হত্যে দাও!

 

আহা! ছি ছি! ও কী করছ?

মিথ্যে কেন ঘাবড়ে যাচ্ছো?

এসব কেবল সম্ভাবনা

এখন থেকেই ভয় পেয়োনা।

গুছিয়ে বোসো, জলটা খাও

প্রশ্ন করছি, জবাব দাও

 

হোমিওপ্যাথির মজাই এই

দেখার বিশেষ ব্যাপার নেই

ঘুরিয়ে ফিরিয়ে প্রশ্ন করব

রোগের চিত্র ফুটিয়ে তুলব

 

আচ্ছা এখন জবাব দাও—

গ্রীষ্মে কেমন কষ্ট পাও?

মোটেই পাওনা? ঠাণ্ডা লাগে?

নাক এঁটে যায় ঘুমের আগে?

ঠিক ধরেছি! আচ্ছা, ইয়ে—

দোর জানলার ছিদ্র দিয়ে

বাতাস ঢুকলে বিরক্ত হও?

হতেই হবে। নুন বেশি খাও?

ভাল্লাগে না? আচ্ছা শোনো—

ঘরের মধ্যে কেউ কখনো

জিনিস পত্র ছড়িয়ে রাখলে

কিংবা কিছু হারিয়ে গেলে

চেঁচিয়ে বাড়ি মাথায় কর?

একটু ক্ষেপেই নেতিয়ে পড়ো?

 

এই যে! ওহে! ঘুমিয়ে পড়লে?

রোগ সারে কি অমন করলে?

হোমিওপ্যাথি সহজ নয়

খুঁটিনাটির খবর চাই!

আচ্ছা বলো—অন্ধকারে

থাকতে পারো একলা ঘরে?

ভয় তো হবেই! কিসের ভয়?

চোর ছ্যাঁচোড়ের? ভূতের নয়?

বাঃ বেশ! বেশ! মিলেই যাচ্ছে

প্রশ্ন করা সহজ হচ্ছে।

 

লেখা: অর্জুন দাস
পাঠ: কোরক সামন্ত
আবহ: শুভাশিস চক্রবর্তী

পোল