জাপান থেকে দক্ষিণ আফ্রিকা, কেমন ছিল হাতে-টানা রিক্সার দীর্ঘ সফর

Published by: Sankha Biswas |    Posted: February 19, 2021 12:42 pm|    Updated: February 19, 2021 12:42 pm

Published by: Sankha Biswas Posted: February 19, 2021 12:42 pm Updated: February 19, 2021 12:42 pm

আবিষ্কারকের নাম নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারে না। এক মার্কিন সূত্র অনুসারে, অ্যালবার্ট টোলম্যান নামের এক আমেরিকান কর্মকার ১৮৪৮ সালের ম্যাসাচুসেটসের উরশেস্টার শহরে মিশনারিদের জন্যে এটি আবিষ্কার করেন। কেউ কেউ আবার বলেন, ১৮৬৯ সালে জনাথন নফবি বা জনাথন গোবল নামের এক আমেরিকান মিশনারি তাঁর অসুস্থ স্ত্রীকে বহন করতে জাপানের ইওকোহামা শহরে এর আবিষ্কার করেন। অনেক গবেষকের মতে, ১৮৬৯–তে টোকিওর দোকানদার ইজুমি ইওসুকি যানটির আবিষ্কারক। নিউ জার্সির ‘দ্য বার্লিংটন কাউন্টি হিস্টোরিক্যাল সোসাইটি’ দাবি করে, ১৮৬৭ সালে গাড়ি প্রস্তুতকারক জেমস বার্ক এটি তৈরি করে তাঁর সংগ্রহশালাতে প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেন। জাপানিরা অবশ্য সিলমোহর দিয়েছেন স্বদেশি আবিষ্কারকর্তার তত্ত্বে। তাঁদের মতে, ইজুমি ইওসুকি, সুজুকি তকুজিরো এবং তাকায়ামা কোসুকিই প্রথম ‘জিনরিকিশা’ বানান। বানানোর অনুপ্রেরণা ছিল ঘোড়ায়–টানা যান।

১৮৭০–এ টোকিওর সরকার এই তিনজনকে রিক্সা তৈরি এবং বিক্রয়ের অনুমতি দেয়। রিক্সা ব্যবহার করার লাইসেন্স পেতে এই তিনজনের মধ্যে যে কোনও একজনের সাক্ষর অবশ্যম্ভাবী ছিল।

উনিশ শতকে ‘জিনরিকিশা’ জাপানের অন্যতম মুখ্য যান হিসাবে পরিচিতি পেতে শুরু করে। ১৮৭২–এ টোকিও রাস্তায় চলাচলকারী এই যানের সংখ্যা ছিল প্রায় ৪০ হাজারের কাছাকাছি।

উনিশ শতকের শেষে দিকে চিনে মানুষে–টানা রিক্সার প্রচলন শুরু হয়।

আফ্রিকায় যানটি ‘Pouse-pouse’ নামে পরিচিত। দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবান শহর জুলু রিক্সার জন্য বিখ্যাত।

আমাদের দেশে এটি প্রথম দেখা যায় ১৮৮০ নাগাদ। হিমাচলপ্রদেশের সিমলায়। পরাধীন ভারতবর্ষে গোড়ার দিকে এই গাড়িকে বলা হত ‘জেনি রিকশ’ বা ‘জিন রিকশ’। পরে তা ছোট হয়ে হয় ‘রিকশ’। সেখান থেকে ‘রিক্সা’।

১৯০০ নাগাদ কলকাতার কিছু চিনে–বাসিন্দা নিজেদের যাতায়াতের জন্য শহরে বিষয়টির আমদানি করেন। প্রাথমিকভাবে এঁরা ছিলেন ব্যবসায়ী গোষ্ঠী। সওয়ারি নয়, মালপত্র পরিবহণের জন্য ব্যবহৃত হত রিক্সা। ১৯১৩-’১৪ সালে শহরের চিনা বাসিন্দারা মানুষ পরিবহণ এবং ভাড়া খাটানোর জন্য সরকারের কাছ থেকে অনুমতি প্রার্থনা করেন।

১৯২০ নাগাদ রিক্সা ব্যবসা সম্পূর্ণ ভারতীয়দের হাতে চলে আসে। রিক্সা চালু হওয়ার পরে পালকি উঠে যায়।

লেখা: সুশোভন প্রামাণিক
পাঠ: সুশোভন প্রামাণিক

পোল