Ramayana: রামায়ণের আদিতে ছিলই না লক্ষ্মণরেখা! কোথা থেকে এল এই গল্প?

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: July 15, 2021 5:22 pm
  • Updated: August 11, 2021 6:48 pm
Ramayana

সীতাকে নিরাপদে রাখতে গণ্ডি টেনেছিলেন লক্ষ্মণ। যার নাম লক্ষ্মণরেখা। কিন্তু বাল্মীকির লেখা মূল রামায়ণে কি লক্ষ্মণরেখার কাহিনি আদৌ ছিল? সন্দেহ যখন জেগেছে, তা মিটিয়ে নেওয়াই ভাল। আসুন, শুনে নেওয়া যাক লক্ষ্মণরেখার বিবরণ।

রবীন্দ্রনাথ তাঁর ছোটবেলার কথা লিখতে গিয়ে বলেছিলেন, চাকরেরা তাঁকে একটা গণ্ডি কেটে তার মধ্যে বসিয়ে রাখত, আর ভয় দেখাত যে গণ্ডি ছেড়ে বেরোলে তাঁর অবস্থা হবে ঠিক সীতার মতো। সে কথা শুনে বালক রবি রীতিমতো ভয়ও পেত। বাস্তবিক, রামায়ণের যে ঘটনাগুলো মনে দাগ কেটে যায়, তার মধ্যে একটা অবশ্যই লক্ষ্মণরেখার গল্প। যে গল্প আমরা সবাই ছোটবেলা থেকেই বারবার শুনে এসেছি, সেটাই আবার বলি। রাম গেলেন বনে, সঙ্গে গেলেন সীতা আর লক্ষ্মণ। বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে ঘুরতে তাঁরা এসে পৌঁছলেন পঞ্চবটী বনে। এখানে থাকার সময়েই মারীচ রাক্ষস একদিন সোনার হরিণ সেজে হাজির হল সীতার সামনে, আর সীতাও পা দিলেন সেই লোভের ফাঁদে। প্রথমে রাম ছুটলেন হরিণের পিছু পিছু। তারপরে হরিণের মায়াকান্নায় ভুলে লক্ষ্মণকেও রামের খোঁজে পাঠাতে চাইলেন সীতা। লক্ষ্মণের তো উভয় সংকট! এদিকে রাম তাঁর দায়িত্বে সীতাকে রেখে গেছেন, এদিকে সীতার কথাও ফেলা যায় না। যুক্তিতর্কের ধার না মেনে তিনি রীতিমতো রাগারাগি শুরু করলেন আর কটু কথা বলতে শুরু করলেন লক্ষ্মণের উদ্দেশে। অতএব, লক্ষ্মণ নিজের ধনুকের অগ্রভাগ দিয়ে একখানা গণ্ডি টানলেন তাঁদের পর্ণকুটিরের সামনে। সীতাকে পইপই করে বলে গেলেন, যেন কোনও কারণেই তিনি এই গণ্ডির বাইরে পা না রাখেন। কিন্তু ভিখারির বেশে রাবণ ছলচাতুরি করে সীতাকে ঠিক বাধ্য করলেন গণ্ডির বাইরে বেরোতে, আর তারপর কী হল সে তো সবাই জানে।

আরও পড়ুন : Spiritual: জগন্নাথ বিগ্রহের কী ব্যাখ্যা আছে শাস্ত্রে?

কী ভাবছেন, যে গল্প সবাই জানে, আবার তা আওড়ে কী হবে! ধৈর্য ধরুন। এবারই যে কাহানি মে টুইস্ট! যে গণ্ডি পেরোনোর জন্য এত কিছু হয়ে গেল, আদতে নাকি সেই গণ্ডিটাই ছিল না! এ কি পি সি সরকারের ম্যাজিক, যে, একটা আস্ত গণ্ডি ভ্যানিশ হয়ে গেল? আজ্ঞে না। ভ্যানিশ হবে কেন, গণ্ডিটা যে ছিলই না কোনও দিন! পুরাণ-বিশেষজ্ঞ নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ী বলছেন, বাল্মীকি এমন কোনও গণ্ডির গল্প বলেননি মোটেই। তাঁর লক্ষ্মণ কেবল সীতাকে রেখে গেছেন বনদেবতাদের ভরসায়। প্রার্থনা করেছেন, যাতে বনদেবতাই সীতাকে রক্ষা করেন। কিন্তু গণ্ডি কাটেননি।

বাল্মীকি রামায়ণে নেই। কম্বু রামায়ণেও নেই। এমনকি শিক্ষিত বাঙালির কাছে রামায়ণের যে দুটি অনুবাদ অত্যন্ত পরিচিত, রাজশেখর বসুর রামায়ণ এবং উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীর ‘ছেলেদের রামায়ণ’, সেখানেও গণ্ডির কথা নেই। লক্ষ্মণ সীতাকে বনদেবতার ভরসায় রেখে যাচ্ছেন এবং যেতে যেতে উদ্বেগ নিয়ে ফিরে তাকাচ্ছেন, এটুকুই। রাবণকেও কোনও গণ্ডি সেখানে আটকে রাখেনি, তিনি প্রথমে লোভ দেখিয়ে, তারপর স্বরূপ ধারণ করে সীতাকে বলপূর্বক অপহরণ করেছেন।

তাহলে গণ্ডি এল কোথা থেকে? গণ্ডি আনলেন বাঙালি কৃত্তিবাস। অনেকে বলেন, বাঙালি যে নাটকীয়তা পছন্দ করে, তা তিনি ভালই বুঝেছিলেন। আর তিনি যখন রামায়ণ অনুবাদ করছেন, তখন সমাজের পরিস্থিতিও বাল্মীকির চেয়ে বদলে গেছে। শ-দুয়েক বছর আগে বিদেশি শাসকের হাতে চলে গেছে বাংলা। সংস্কৃত কাব্যে নাটকে মেয়েরা নির্জন রাতে অভিসারে গেলেও নিরাপত্তা নিয়ে বিশেষ চিন্তিত হত না। কিন্তু কৃত্তিবাসের সময়ে একদিকে মেয়েদের নিরাপত্তার চিন্তা, আরেকদিকে শাসকের অনুকরণে পর্দাপ্রথার কড়াকড়ি। অতএব কৃত্তিবাসে চলে এল গণ্ডি।

আরও শুনুন: Ratha Yatra: কথায় বলে ‘রথ দেখা কলা বেচা’, কিন্তু কেন জানেন?

তাহলে কী দাঁড়াল! যে লক্ষ্মণরেখা পেরনোর জন্য সীতাকে মাঝেমধ্যে খোঁটা শুনতে হয় আজও, গোড়াতে তা ছিলই না। এসেছে যুগের প্রয়োজনে। যুগের প্রয়োজনেই কি তা আবার উবে যাবে! সে উত্তর সময়ই দেবে।

আরও শুনুন
Listen to this podcast on spiritual thoughts for peace and tranquility

Spiritual: নাম-সংকীর্তনে কী ফল মেলে?

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Kerala Panchayat banned the colonial addresses like Sir and Madam

‘স্যার’, ‘ম্যাডাম’ আর নয়, ঔপনিবেশিক সম্বোধন রদ করে নজির কেরল পঞ্চায়েতে

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Spiritual: how a person can dive into the ocean of worship| Bangla Podcast

Spiritual: মানুষের জীবনে সাধন-ভজনের গুরুত্ব কী?

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
Pori Moni tortured in Police custody, alleges Taslima Nasrin

‘ধর্ষণ করা হচ্ছে না তো?’ পুলিশ হেফাজতে থাকা Pori Moni-কে নিয়ে বিস্ফোরক প্রশ্ন Taslima Nasrin-এর

কেন এই আশঙ্কা তসলিমার? শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Kolkata becomes the safest city of India according to NCRB report

তিলোত্তমার মুকুটে নয়া পালক, দেশে সবথেকে নিরাপদ শহর কলকাতা

কেন এগিয়ে কলকাতা? শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Movie review: Hungama 2 makes cinepisi quite pleased

Hungama 2 দেখে খোশমেজাজে Cineপিসি বলল…

Hungama 2 দেখে Cineপিসি যা বলল… প্লে-বাটন ক্লিক করে শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Take care of your feet in rainy season | Sangbad Pratidin Shono

বর্ষায় ভিজে পায়ে সারাদিন থাকতে হয়! পায়ের যত্ন নেবেন কীভাবে?

ভেজা পায়ে থাকা মানেই নানা অসুখ বিসুখের বাড়বাড়ন্ত। বর্ষাকালে তাই পায়ের যত্ন নিতে হবে আলাদা করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো