দেশভাগে ছাড়াছাড়ি, কেটে গেছে ৭৪ বছর, এতদিনে দেখা হল ‘হারিয়ে যাওয়া’ দুই ভাইয়ের

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: January 13, 2022 7:25 pm
  • Updated: January 13, 2022 7:25 pm

চুয়াত্তর বছর পরে আবার দেখা! ততদিনে বদলে গিয়েছে অনেক কিছুই। দু-জনের দুটো দেশ, কাঁটাতার। বয়স আশি পেরিয়েছে দুজনেই। চুলে ধরেছে পাক, বয়সের ভারে ন্যুব্জ শরীর। কোনও দিনও যে ফের দুজনের দেখা হতে পারে, তা-ই এতদিন ছিল ভাবনার বাইরে। তবু সেও সম্ভব হল একদিন। এতদিন পরে একে অপরকে দেখে চোখের জল সামলাতে পারলেন না দুজনের কেউই। আবেগে ভাসল কর্তারপুর করিডর। হারিয়ে যাওয়া সেই দুই ভাইয়ের গল্প… চলুন, শুনে নিই।

১৯৪৭ সালে দেশভাগের সময় আলাদা হয়ে গিয়েছিলেন দুই ভাই। একজন ছিটকে গিয়েছিলেন পাকিস্তানে, আর এক জনের ঠাঁই হয় এ দেশে। সেসব দিনগুলোর কথা ভেবে আজও শিউড়ে ওঠেন অশীতিপর বৃদ্ধ। পাকিস্তানের ফয়জলাবাদের বাসিন্দা মহম্মদ সিদ্দিক তখন একেবারে ছোট। দেশভাগের ওই সময়টায় কীভাবে যেন ছড়িয়ে ছিটিয়ে গেল পরিবারটা। দাদা হাবিব রয়ে গেলেন পঞ্জাবেই। আর সিদ্দিক পাকিস্তানে। ব্যাস, ওই শেষ। তার পর দু-ভাইয়ের আর দেখা হয়নি কোনওদিন।

আরও শুনুন: শীতে যেন কেউ কষ্ট না পায়! চিপসের প্যাকেট দিয়েই গরিবদের জন্য কম্বল বানাল খুদে

দেখতে দেখতে কেটে গিয়েছে চুয়াত্তরটা বছর। দু-জনেরই নিজস্ব নিজস্ব পরিবার হয়েছে, ঘরবাড়ি, সংসার সব কিছুর মধ্যেই সেই স্মৃতি সময়ে-অসময়ে ভারী করে দিত বুক। অবশ্য হাবিব বিয়ে-থা করেননি। মায়ের সেবা করেই কাটিয়ে দিয়েছেন জীবনটা। দু-ভাইয়ের কোনও দিনও আর দেখা হতে পারে, তা ভাবেননি কেউই। সম্প্রতি সেই অসম্ভবকেই সম্ভব করে দিল কর্তারপুর করিডর।
সম্প্রতি সেখানেই দেখা হল দুই ভাইয়ের। দেখা হতে আবেগ সামলে রাখতে পারলেন না কেউই। একে অপরকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেললেন দুই বৃদ্ধ। মনে পড়ে গেল অবিভক্ত দেশের বাড়ি, পরিবার আর ছোটবেলার হাজারটা স্মৃতি। সব ভুলে সেসব আলোচনাতেই ব্যস্ত রইলেন দুই ভাই।

আরও শুনুন: প্রেরক ও প্রাপক দুজনেই মৃত, ৭৬ বছর পর ঠিকানায় গিয়ে পৌঁছল চিঠি

পঞ্জাবের ডেরা বাবা নানক শিরিন ও পাকিস্তানের দরবার শিরিনকে জুড়েছে ৬ কিলোমিটার লম্বা এই কর্তারপুর করিডোর। কথিত আছে, জীবনের শেষ আঠারোটা বছর পাকিস্তানের এই গুরুদ্বারেই কাটিয়েছিলেন গুরু নানক। তাই শিখ তীর্থযাত্রীদের জন্য এই স্থান খুবই পবিত্র। ২০১৯ সালে তীর্থযাত্রীদের জন্য এই করিডোর খুলে দেয় দু-দেশের সরকার। কোনও রকম ভিসা ছাড়াই ওই ধর্মস্থানে ভ্রমণ করতে পারেন ভারতীয় বংশোদ্ভূতরা।
আর সেই করিডোরই জীবনের শেষ বয়সে এনে দেখা করিয়ে দিল দুই ভাইয়ের। তার জন্য দু-দেশের সরকারকেই কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন অশীতিপর দুই বৃদ্ধ। তাঁদের সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা দেখে আবেগে ভেসেছে নেটবিশ্ব।

বাকি অংশ শুনে নিন।

আরও শুনুন
The tradition of kite flying during Makar

মকর সংক্রান্তিতে ওড়ানো হয় ঘুড়ি, জানেন কোন ভাবনা থেকে এল এই বিশেষ রীতি?

কোথায় কোথায় রয়েছে এই চল? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

poet Ramprasad Sen wrote songs to worship Goddess Kali

কেরানি থেকে হলেন সাধক কবি, মা কালী কি সত্যিই কৃপা করেছিলেন রামপ্রসাদ সেনকে?

হিসেবের খাতায় কবিতা লিখে চাকরি গিয়েছিল রামপ্রসাদের। শুনে নিন এই সাধক কবির কথা।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

when was calendar invented and why

বছর ঘুরলেই পালটে যায় ক্যালেন্ডারও, কীভাবে শুরু হয়েছিল এই দিনপঞ্জি?

ইংরেজি মতে ক্যালেন্ডার তৈরি হয়েছিল কার হাতে? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
World Emoji Day: Know the meaning of these emojis

টুক করে পাঠিয়ে তো দেন Emoji, মানে না জানলে কিন্তু পুরোটাই Emotional Atyachar!

রাতদিন ইমোজি পাঠান, সবগুলোর মানে জানেন তো?

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

zero-rupee note was introduced in India to fight corruption

ভারতেই রয়েছে শূন্য টাকার নোট! কী কাজে লাগতে পারে জানেন?

শূন্য টাকার নোটের গুরুত্ব কিন্তু শূন্য নয়... শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

How can you find your lost smart phone? use these techniques

হারানো SMART PHONE সুইচড অফ? খুঁজে পাবেন কোন উপায়ে?

জরুরি বিষয়। শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Special Podcast: Audio Drama 'Ek Bhuture Kando', Based on the story of Shibram Chakraborty

SPECIAL PODCAST: শিবরাম চক্রবর্তীর গল্প অবলম্বনে নাটক ‘এক ভূতুড়ে কাণ্ড’

ঘন জঙ্গলের মধ্যে সাইকেলের টায়ার ফেঁসে আটকে পড়ল একজন, তারপর...

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো