পুরনো বাসন দেখলেই ঘরে নিয়ে আসেন এক ব্যক্তি, কিন্তু কেন জানেন?

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: October 25, 2021 8:47 pm
  • Updated: October 25, 2021 8:47 pm

প্রত্যেকটা মানুষেরই কিছু না কিছু শখ থাকে। কেউ বই পড়েন, কেউ গান শুনতে ভালোবাসেন। কেউ বা সিনেমা দেখতে। কিন্তু এখন যে ব্যক্তির কথা শুনব, তাঁর শখ বেশ অদ্ভুত। তিনি ভালোবাসেন পুরনো থালা-বাসন সংগ্রহ করতে। কিন্তু কেন তাঁর এমন আজব শখ!

পুরনো থালাবাসন। ব্রোঞ্জ কিংবা পিতলের তৈরি। যদি হয় বছর পঞ্চাশের পুরনো, তবে খবর পেলেই হাজির হয়ে যান এক ব্যক্তি। কেননা তাঁর শখই যে পুরনো থালাবাসন সংগ্রহ করা।

পুদুচেরির এই ব্যক্তির নাম আয়ানার, ছোটবেলা থেকেই তিনি এই ধরনের জিনিসপত্র সংগ্রহ করেন। এখন এই বয়সকালে তাঁর কাছে বহু সংখ্যক অ্যান্টিক জিনিসপত্র আছে। এবং সেই স্টক বেশ ঈর্ষণীয়। বছরে একবার তিনি তাঁর এই জোগাড় করা জিনিসপত্রের প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেন। ছাত্ররা ঘুরে দেখতে পারেন তাঁর সংগ্রহ করা বাসন।

আরও শুনুন: ৪০০ বছর ধরে সমুদ্রে ঘুরে চলেছে ভূতুড়ে জাহাজ! কী এই রহস্য?

কিন্তু সব ছেড়ে কেন পুরনো বাসনকোসন জোগাড় করেন তিনি? মূলত তামিল পূর্বসূরীরা কী ধরনের বাসনপত্র ব্যবহার করতেন, তার তত্ত্বতালাশ করাতেই তাঁর আগ্রহ। সেকালে নিজেদের প্রয়োজন অনুযায়ী কেমন বাসন ব্যবহার করতেন মানুষ, কীভাবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাসনের বিবর্তন হয়েছে, তার প্রায় ইতিহাসই আছে তাঁর কাছে। সাধারণত বাসনের মতো সাধারণ জিনিস কেউ জোগাড় করে রাখেন না। তাই একসময় ভাঙাচোরা হয়ে তা নষ্ট হয়ে যায়। ফলত মানুষের দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসের মাধ্যমেও যে তার উদ্ভাবনী শক্তির প্রকাশ, তা তেমন কেউ খেয়ালই করেন না। এই প্রায় অনালোচিত ইতিহাসই এই সংগ্রহের মাধ্যমে ধরে রেখেছেন আয়ানার। শুধু কীরকম ধাতু দিয়ে বাসন তৈরি হত তাই-ই নয়, তাদের আকার-আকৃতি ইত্যাদিও গবেষকদের কাছে উৎসাহব্যঞ্জক। অতীতে এরকম বহু বাসন ব্যবহার হত, যা আজ আমরা শুধু ছবিতেই দেখতে পাই। কেননা তার কোনও নির্দশন সংরক্ষিত নেই। ঠিক সেই জায়গাতেই ব্যতিক্রম এই ব্যক্তি। নষ্ট হয়ে যাওয়া থেকে তিনি বাঁচিয়েছেন এই বাসনপত্রকে। ফলত তাঁর সংগ্রহ যদি কেউ ঘুরে দেখেন, তিনি এ সম্পর্কে নির্দিষ্ট ধারণা পেতে পারেন।

আরও শুনুন: বিমান থেকে মানুষের মল এসে পড়ল মাথায়, নিজের বাগানেই নাস্তানাবুদ হলেন এক ব্যক্তি

শখ তো অনেকেরই থাকে নানারকম। তবে এই ব্যক্তির শখের যে ইতিহাসগত মূল্য আছে, তা তো বোঝাই গেল। আর তাই তাঁকে কুর্নিশ জানায় দেশবাসী তথা গবেষক ছাত্ররা।

আরও শুনুন
Kolkata becomes the safest city of India according to NCRB report

তিলোত্তমার মুকুটে নয়া পালক, দেশে সবথেকে নিরাপদ শহর কলকাতা

কেন এগিয়ে কলকাতা? শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Kiara Advani shares her experience of acting in an adult scene

ক্যামেরার সামনে হস্তমৈথুন, কীভাবে প্রস্তুতি নেন অভিনেত্রীরা?

নিজের অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছিলেন কিয়ারা আদবানি। শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Longyearbyen: a city where birth and death are illegal

Longyearbyen: এই শহরে জন্ম-মৃত্যু নাকি আইনত নিষিদ্ধ! কেন জানেন?

কোন জায়গায় জন্ম মৃত্যু দুই’ই আইনত নিষিদ্ধ? শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
News Bulletin: Current News for the day of 30 October 2021

30 অক্টোবর 2021: বিশেষ বিশেষ খবর- ভ্যাটিকানে মোদি-পোপের প্রথম সাক্ষাতে একাধিক ইস্যুতে আলোচনা

শুনে নিন বিশেষ বিশেষ খবর। 

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Book Review: Story of legendary footballer and coach P. K. Banerjee

জোড়া গোল করেও জুটল বাবার হাতে চড়, জীবনের অন্য শিক্ষা পেলেন পিকে

কেন সেদিন পিকে-কে মেরেছিলেন তাঁর বাবা? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

news-bulletin-current-news-for-the-day-of-15-september-2021

15 সেপ্টেম্বর 2021: বিশেষ বিশেষ খবর- চালু হচ্ছে না লোকাল ট্রেন, রাজ্যে করোনা বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়ল ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত

বিশেষ বিশেষ খবর শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

why Raja Nabakrishna Deb started Durga Puja in Shovabazar Rajbari

মা নাকি নাচ দেখতেন তাঁর বাড়িতে, কলকাতায় অকালবোধন করলেন নবকৃষ্ণ দেব

শুনে নিন সে গল্প।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো