স্বয়ং সত্যজিৎ রায়কে এই অভিনেতা স্পর্ধাভরে বলেছিলেন, ‘আমার বাগদত্তা আপনার ছবিতে অভিনয় করবেন না!’

Published by: Sankha Biswas |    Posted: May 31, 2021 2:00 pm|    Updated: May 31, 2021 2:00 pm

Published by: Sankha Biswas Posted: May 31, 2021 2:00 pm Updated: May 31, 2021 2:00 pm

সত্যজিৎবাবুর সঙ্গে একদিন সকালবেলা যিনি দেখা করতে এলেন তিনিও বেশ বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। তাঁর আভিজাত্যপূর্ণ রাজকীয় চেহারা, ভরাট কণ্ঠস্বর বাংলার রুপোলি পর্দায় তাঁকে রাতারাতি বিখ্যাত করে তুলেছিল। প্রাথমিক কুশল বিনিময় করে সত্যজিৎবাবুর উলটোদিকের সোফায় বসে গম্ভীর কণ্ঠে ভদ্রলোক বললেন– মানিকবাবু, আমি একটু বিশেষ দরকারে আপনার কাছে এসেছি।

সত্যজিৎ জিজ্ঞাসু দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলেন।

আগন্তুক বলে চললেন– আমি সরাসরি মূল বিষয়ে আসি। আমার ভাবী স্ত্রী আপনার ছবিতে অভিনয় করবে না। আপনি ওঁর পরিবর্তে অন্য কারও কথা ভাবুন।

এই বক্তব্য শুনে সত্যজিৎ রায় আক্ষরিক অর্থেই হাঁ হয়ে গেলেন।

কিন্তু ওঁকে কিছু বলার সুযোগ না দিয়েই আগন্তুক তাঁর গাম্ভীর্য বজায় রেখে বলে চললেন– আমি কখনওই চাই না আমার ভাবী স্ত্রী এই অভিনয় শিল্পের সঙ্গে কোনওভাবে যুক্ত থাকুক। স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই যদি এই একই পেশার সঙ্গে যুক্ত থাকে, তাহলে পরবর্তী কলে তাদের দাম্পত্যজীবনে কিছু অনভিপ্রেত জটিলতা তৈরি হবে। তাই আমার অনুরোধ আপনি ওই চরিত্রে অন্য কাউকে নিন।

এবার সত্যজিৎ রায়ও অত্যন্ত গম্ভীরভাবে প্রশ্ন করলেন– আপনি ঠিক কার কথা বলছেন একটু খুলে বলুন।

জবাব এল তৎক্ষণাৎ– আমি অলকা চক্রবর্তীর কথা বলছি। উনি আমার বাগদত্তা। আমাদের দাম্পত্যজীবনে পরবর্তীকালে কোনও সমস্যা হতে পারে, এমন যেকোনও সম্ভাবনাই আমি গোড়াতেই শেষ করতে চাই। কাজেই অলকা আপনার ছবিতে অভিনয় করবে না।
সেদিনের এই কথোপকথন আর বেশি দূর এগয়নি। সত্যজিৎ বাবুও অলকা চক্রবর্তীকে ‘অপরাজিত’ ছবিতে নেননি। এখন প্রশ্ন হল, কে ছিলেন সেই আগন্তুক যাঁর এত স্পর্ধা, এত সাহস?
বলা হয়, একটা সময়ের পর তাঁর মতো রূপবান ও অপূর্ব কণ্ঠসম্পদের অধিকারী নায়ক বাংলা চলচ্চিত্র জগতে আসেননি। সত্যি কথা বলতে রূপের আভিজাত্যের ক্ষেত্রে তিনি পিছনে ফেলে দিয়েছিলেন স্বয়ং মহানায়ককেও। অথচ তিনি হয়তো হতে পারতেন ডাক্তার, অথবা ইঞ্জিনিয়র। হতে পারতেন হয়তো কোনও বড় সংস্থার উচ্চপদস্থ চাকুরে। ছোটবেলা থেকে যে তিনি অভিনয়ের প্রতি আকৃষ্ট ছিলেন এমনও না। এমনকী, স্কুল-কলেজেও যে তিনি খুব একটা নাটকে অভিনয় করেছেন, তাও নয়। অথচ সেই তিনিই, বি.এ. পাস করার পর হঠাৎই সিদ্ধান্ত নিলেন অভিনয় করবেন। না, কোনও শখের অভিনয় নয়। অভিনয় হবে তাঁর পেশা।
কে তিনি?
শুনে নিন…

লেখা: অনুরাগ মিত্র
পাঠ: শঙ্খ বিশ্বাস
আবহ: শঙ্খ বিশ্বাস

পোল