জঞ্জাল ফেলার জন্য কলকাতায় তৈরি হয়েছিল রেলপথ, একসময় চলত ‘ধাপা মেল’

  • Published by: Saroj Darbar
  • Posted on: November 24, 2021 3:40 pm
  • Updated: November 24, 2021 3:40 pm

শহরের একটা প্রধান রাস্তা, অথচ সেই রাস্তা নাকি কোনওরকম পরিকল্পনা করে তৈরি হয়নি। শহরের বর্জ্যস্তূপ বুজিয়ে দেওয়ার ফলে এই রাস্তা তৈরি হয়ে গিয়েছিল। আর এককালে এই রাস্তার উপরেই নাকি বসানো হয়েছিল আস্ত একটা রেললাইনও। তাও, জঞ্জাল সাফ করার জন্যেই! শুনে নিন সেই গল্প।

বর্তমানে যে সার্কুলার রোড কলকাতার একটা বিরাট অংশকে জুড়ে রেখেছে, আদতে যে তা ছিল জঞ্জাল ফেলার জায়গা। সে কথা কি জানতেন? হ্যাঁ, আজ যে রাস্তার উপর দিনরাত গাড়িঘোড়া আর মানুষের ব্যস্ত ভিড়, এককালে তা ছিল আস্ত একটা পরিখা। অর্থাৎ খাল। বর্গি হানা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য খোঁড়া হয়েছিল এই পরিখাটি। নাম মারাঠা ডিচ। মারাঠাদের হামলা থামল, কিন্তু খাল রয়ে গেল। এদিকে নামেই শহর, কিন্তু যেখানে সেখানে নোংরা আবর্জনা জমে কলকাতার পরিবেশ তখন চূড়ান্ত অস্বাস্থ্যকর। বিলেত থেকে এদেশে এসে পা রাখেন যে সাহেব-মেমরা, তাঁদের অনেককেই প্রাণটাও রেখে যেতে হয় এ শহরেই। ম্যালেরিয়া জ্বরে মারা যান একের পর এক সাহেব।

আরও শুনুন: প্রথম বাঙালি মহিলা হিসেবে লিখেছিলেন আত্মজীবনী, জানেন কে তিনি?

এই পরিস্থিতিতে কলকাতার তখনকার শাসক, ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি সিদ্ধান্ত নিল, আর কিছু না হোক, অন্তত এই অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ থেকে মুক্তি পাওয়া জরুরি। নিয়মিত জঞ্জাল পরিষ্কার ও বন-জঙ্গল কাটার আদেশ এল কোম্পানির তরফে। মারাঠা ডিচে জমতে লাগল শহরের আবর্জনা। ১৭৯৯ সালে মারাঠা ডিচ আবর্জনায় ভরাট হয়ে গেলে আরও মাটি ফেলে পোক্ত করে তৈরি হল বাহার সড়ক বা সার্কুলার রোড।

কিন্তু সার্কুলার রোডের তাতে কপাল ফিরল না। এর সঙ্গে জঞ্জাল ফেলার ব্যাপারটা জুড়েই রইল। কেমন করে? সে কথাই বলা যাক।

আরও শুনুন: কলকাতার রসগোল্লার জন্ম এঁর হাতেই, কীভাবে এল এই সাধের মিষ্টি?

সাহেবরা বুঝতে পেরেছিলেন, একের পর এক পরিখা কেটে তাদের জঞ্জালে ভর্তি করাটা কোনও স্থায়ী সমাধান হতে পারে না। ম্যালেরিয়ার মড়ক সামলাতে তৈরি হয়েছিল ফিভার হসপিটাল অ্যান্ড মিউনিসিপ্যাল এনকোয়ারি কমিটি। এই কমিটিরই উপর ভার পড়ল, শহর কীভাবে পরিষ্কার রাখা যায় তা খতিয়ে দেখার। ১৮৩৭ সালে প্রস্তাব দেওয়া হল, একটি জঞ্জাল সংগ্রহকারী গাড়ি নির্দিষ্ট সময়ে শহর পরিক্রমা করবে। সেই গাড়ির ঘণ্টা শুনে এলাকার বাসিন্দারা তাদের বাড়ির জঞ্জাল গাড়িতে পৌঁছে দেবে।

বাকি অংশ শুনে নিন। 

আরও শুনুন
Chalchitra of Goddess Durga on the verge of extinction

থিমের দৌড়ে হেরে ভূত সাবেকিয়ানা, অবলুপ্তিই ভবিষ্যৎ বাংলার চালচিত্রর?

বাংলার চালচিত্র কি হারিয়ে যাবে অবলুপ্তির আঁধারে?

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Women : Managing Home and Office in Lockdown | Bangla podcast

Home + Work From Home – সব সামলে কেমন আছেন কর্মরতা মহিলারা?

ঘরে থেকেই সামলাতে হচ্ছে অফিস কাছারি। এতে কি সুবিধা বাড়ছে আদৌ? নাকি ঘর আর বাইরের সীমা গুলিয়ে গিয়ে অগোছালো হয়ে যাচ্ছে জীবনটাই?

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Here goes Sidharth Malhotra And Kiara Advani's Reaction About Kissing Scene In Shershaah

সিদ্ধার্থ-কিয়ারার Kiss-কিস্‌সা… চিত্রনাট্য নাকি নিজেদের ইচ্ছেতেই অনস্ক্রিন চুমু!

দুজনের কিস কিস্‌সা শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

মিস করবেন না!
An Egyptian mummy is 1,000 years older than originally thought

বয়স প্রায় ৪০০০ বছর, এখনও অবিকৃত আছে মিশরের প্রাচীনতম মমি

কীভাবে সংরক্ষণ করা হয়েছিল মমি, শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

'Cinepisi' Talks about 5 heroines who attracts attention in recent time

বলিপাড়া সরগরম জনাকয় কন্যের কীর্তিতে, হাঁড়ির খবর নিয়ে হাজির Cineপিসি

কাদের কোন কথা বলতে এলেন Cineপিসি? শুনে নিন।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Horoscope : Check your astrological prediction for the day 18 August 2021

Horoscope: আর্থিক বিষয়ে শুভ দিন কাদের? জেনে নিন রাশিফল

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো

Ahmedabad: country liquor reportedly flowing out of the taps of 40 home

ঘরে জলের কল খুললেই হু হু করে বেরোচ্ছে দিশি মদ? চোখ কপালে গেরস্থের

শুনে নিন প্লে-বাটন ক্লিক করে।

Team সংবাদ প্রতিদিন শোনো