ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘ফার্স্ট পার্সন’: “মেরে পাস ‘নন্দন’ হ্যায়”

Published by: Sohini Sen |    Posted: March 22, 2021 2:57 pm|    Updated: March 22, 2021 2:57 pm

Published by: Sohini Sen Posted: March 22, 2021 2:57 pm Updated: March 22, 2021 2:57 pm

সংবাদ প্রতিদিন-এর ‘রোববার’ পত্রিকার জন্মলগ্ন থেকে দীর্ঘদিন সম্পাদক ছিলেন ঋতুপর্ণ ঘোষ। তাঁর সম্পাদকীয় কলামের পোশাকি নাম ছিল ‘ফার্স্ট পার্সন’।এই কিংবদন্তি স্রষ্টার সেই মাস্টারপিস লেখার কিছু অংশ পড়ে শোনাচ্ছেন তাঁরই একসময়ের সহকর্মী অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়। রইল পঞ্চম কিস্তি।

পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে নিরাপদ জায়গা আমার মায়ের বাড়ি– লীলা মজুমদারের ‘অন্য কোনখানে’ বইটা শুরু হয় এই লাইনটা দিয়ে।

কলকাতা শহরে আমারও এরকম তিনটে নিরাপদ জায়গা আছে।

আমাদের টালিগঞ্জের বাড়ি, যেখানে আমি জন্মেছি, বড় হয়েছি। আমার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়– যেখানে প্রথম ডানা মেলেছে অলেকগুলো নতুন ভাবনা। আর আমার রবীন্দ্রসদন– নন্দন চত্বর, যেখানে দাঁড়িয়ে বারবার করে মনে হয়েছে সেই সব ভাবনার পুণ্য সঙ্গমস্থল যদি কিছু থাকে– তা হ’ল এই জায়গাটাই।

নন্দন-রবীন্দ্রসদন-বাংলা অ্যাকাডেমির এই ছায়াচ্ছন্ন চত্বরটা আমার মতো অনেকের কাছেই বড় স্নিগ্ধ আদরের জায়গা। যতবার নন্দন, রবীন্দ্রসদনের গেট দিয়ে ভেতরে ঢুকি নতুন করে মনে হয় বড় একটা শান্তির, নির্ভরতার, আনন্দের আশ্রয়ে এসে পৌঁছোলাম।

এই চত্বরে প্রথম স্কুল পাশ করে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে আমরা সদে্যাপ্রয়াত ঋত্বিক ঘটকের রেট্রোস্পেকটিভ দেখেছি। কথাটার মানেও বোধহয় শিখেছি ওই প্রথম।

এই নন্দনে কলকাতা ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের আবেগ, আমাকে ব্যক্তিগতভাবে পৃথিবীর সমস্ত চলচ্চিত্র উৎসবের হাতছানিকে অবলীলায় অগ্রাহ্য করতে শিখিয়েছে। ভিন শহরের বা বিদেশের বন্ধুরা যখন তাদের নিজেদের ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের নানা প্রযুক্তির, নানা আধুনিকতার, নানা ফিরিস্তি দিয়ে বড়াই করছে, প্রায় দীওয়ার-এর অমিতাভ বচ্চনের সামনে নম্র প্রতিস্পর্ধা শশী কাপুরের মতো আমরাও শেষ হাসি হেসেছি– “মেরা পাস ‘নন্দন’ হ্যায়।” তোমরা বড় অডিটোরিয়াম দিতে পার। দামী গাড়ি করে ফেস্টিভ্যাল কক্ষে নিয়ে যেতে পার– আমাদের নন্দন, রবীন্দ্রসদন তো দিতে পারবে না।

এ কথা যখন বলেছি তখন নিশ্চয়ই বাড়ির দুটো কথা বলিনি। তার স্থাপত্যের কথা বলিনি। বলেছি এমন এক নিরাপদ স্বাধীন সাংস্কৃতিক পরিবেশের কথা যা সত্যজিৎ রায়ের মতো মানুষের মরদেহ ধারণ করার মতোই পবিত্র।

সেই রবীন্দ্রসদন– নন্দন চত্বর থেকে গতমাসে সিঙ্গুর বিষয়ক পোস্টার প্রদর্শনীর বিজ্ঞপ্তি সাঁটবার অপরাধে তিনটি ছেলেকে গ্রেফতার করলেন পুলিশ। ঠিক পাশে রবীন্দ্রসদন মঞ্চে তখন আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসব চলছে।

বাকিটা শুনে নিন…

লেখা: ঋতুপর্ণ ঘোষ
পাঠ: অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়
আবহ: শঙ্খ বিশ্বাস

পোল