সেই ‘বেশ রোগা অল্পবয়সি মেয়েটি’

Published by: Susovan Pramanik |    Posted: May 25, 2021 9:34 pm|    Updated: May 25, 2021 11:30 pm

Published by: Susovan Pramanik Posted: May 25, 2021 9:34 pm Updated: May 25, 2021 11:30 pm

বোম্বেতে গিয়ে সেবার পুলকবাবুর দেখা করতে যাওয়ার কথা রফি সাহেবের ফ্ল্যাটে। ঠিক বিকেল সাড়ে পাঁচটা নাগাদ পৌঁছতে হবে বান্দ্রায় রফি সাহেবের কাছে। পৌঁছতে সেদিন একটু দেরিই হয়েছিল পুলকবাবুর। কিন্তু পৌঁছনোর পর কী ঘটেছিল সেটাই গল্পের মূল আকর্ষণ। আসল কথা হল, মহম্মদ রফি নিজে যেমন খেতে ভালবাসতেন, তেমনই অন্যদের খাওয়াতেও ভালবাসতেন। আর সেদিন পুলকবাবুর ভাগ্য ছিল সুপ্রসন্ন। রফি সাহেবের স্ত্রী সেদিন কাবাব বানিয়েছিলেন। তাই পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভ্যর্থনা করে বসিয়েই কিংবদন্তি গায়ক বলে উঠলেন– ‘পুলকসাব, কামকে বাতচিত থোড়ে বাদমে, পহেলে কুছ কাবাব হো যায়ে…।’ পুলকবাবুর সামনে তখন প্লেটভর্তি সুগন্ধি কাবাব। মুখে ফেলতেই মাখনের মতো গলে গেল। পুলকবাবু ওই কাবাবের স্বাদে আর গন্ধে সম্পূর্ণ ঘায়েল। এই গল্প তিনি রসিয়ে শোনাচ্ছেন বন্ধুবর শৈলেনকে।

গল্প শুনে শৈলেনবাবুর জিভেও জল, বলাই বাহুল্য। তিনি একটা কিছু বলতে যাবেন, এমন সময় এই জমাটি আড্ডায় একটু ছেদ পড়ল। ড্রইংরুমে এসে উপস্থিত একটি বেশ রোগা চেহারার অল্পবয়সি একটি মেয়ে। তাকে দেখে একবার ঘড়ির দিকে তাকিয়ে শৈলেন মুখোপাধ্যায় বলে উঠলেন– ওহো! তুমি এসে গিয়েছ। এক কাজ করো, তুমি সামনের দিন এসো। আজ আর ক্লাস হবে না। মেয়েটি কিছু না বলে সম্মতিসূচক ভাবে ঘাড় নেড়ে শৈলেনবাবুকে প্রণাম করে পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়কেও একটি প্রণাম করে এবং চলে যেতে উদ্যত হয়। পুলকবাবু মেয়েটির নাম ও বাড়ি কোথায় জিজ্ঞেস করেন। খুব নরম মিষ্টি কণ্ঠে চোখ নামিয়ে মেয়েটি নিজের নাম বলে। বাগবাজারে থাকে বলে জানায়। অর্থাৎ, বাগবাজার থেকে সে গান শিখতে এসেছে ভবানীপুর! এবার পুলকবাবু বন্ধুকে বললেন– শৈলেন, অনেকদূর থেকে এসেছে। ওকে ফিরিয়ে দিও না। আমি কিছুক্ষণ অপেক্ষা করি। তুমি ওর ক্লাসটা করিয়ে দাও। বন্ধুর কথামতো শৈলেন মুখোপাধ্যায় ক্লাস নিতে শুরু করলেন। শুরু হল মেয়েটির সংগীত শিক্ষার পর্ব। পুলকবাবু মন দিয়ে শুনতে লাগলেন মেয়েটির গান। জহুরির কাজই হল রত্ন চিনে নেওয়া। মেয়েটির যেমন মিঠে গলা, তেমনই গলায় সূক্ষ কাজ। তন্ময় হয়ে শুনলেন পুলকবাবু।
বাকিটুকু শুনে নিন…

লেখা: অনুরাগ মিত্র
পাঠ: সুযোগ বন্দ্যোপাধ্যায়
আবহ: শঙ্খ বিশ্বাস

পোল