হিন্দুস্তান-পাকিস্তান কাঁপানো ‘আজ জানে কি জিদ না করো’ লেখা হয়েছিল খাস কলকাতায়

Published by: Susovan Pramanik |    Posted: March 9, 2021 8:32 pm|    Updated: March 9, 2021 8:54 pm

Published by: Susovan Pramanik Posted: March 9, 2021 8:32 pm Updated: March 9, 2021 8:54 pm

ন’-দশ বছর বয়স থেকে ফয়াজ হাশমির লেখালিখিতে হাতেখড়ি। ক্লাস সেভেনে পড়ার সময় লেখেন প্রথম নজম। তাঁর সেই লেখা পড়ে মুগ্ধ হয়েছিলেন সেই সময়কার কলকাতার উর্দু ও ইংরেজি সাহিত্যের মহাপণ্ডিত জনাব আগা হসর কাশ্মিরী। তিনি ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন, বহুদূর যাবে ফয়াজ। বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি, উর্দু সাহিত্যের অনুরাগী ফয়াজ হাশমি এরপর কলেজের পাঠ চুকিয়ে মাত্র কুড়ি বছর বয়সে যশোর রোডে ‘গ্রামোফোন কোম্পানি অফ ইন্ডিয়া’য় রেসিডেন্ট লিরিসিস্ট রূপে কাজে যোগ দেন। এর মধ্যেই প্রায় তিনশোরও বেশি শায়েরি লিখে ফেলেন। অনেকের মতে, এই সময়ই নাকি লেখা হয়েছিল ‘আজ জানে কি জিদ না করো’। পুরোটা নয়, শুধু প্রথম স্তবকটুকু।
সত্যি-মিথ্যে জানা নেই, কিন্তু ফয়াজ হাশমির ঘনিষ্ঠদের মতে, এর নেপথ্যেও রয়েছে একটি চমকে দেওয়া ঘটনা। বঙ্গবাসী কলেজে পড়াকালীন এক বঙ্গললনার প্রেমে পড়েছিলেন ফয়াজ। কিন্তু কোনওদিন তাঁকে প্রেম-নিবেদনের সাহস দেখাতে পারেননি। সময় পেরয়। মেয়েটিরও অন্যত্র বিয়ে ঠিক হয়ে যায়। বিশিষ্ট সাংবাদিক ও সিনে-গবেষক খালিদ হাসান জানিয়েছেন, সেই হারানো প্রেমের উদ্দেশেই লেখা হয় ‘আজ জানে কি…’। যদিও পুরো গান তখনও লেখা হয়নি। সেই প্রথম প্রেমকে কোনওদিনই নাকি তিনি ভুলতে পারেননি ফয়াজ। প্রথম হৃদয় ভাঙার সেই তীব্র যন্ত্রণা ফুটিয়ে তুলেছিলেন কবিতার পাতায় পাতায়।
কালক্রমে সীমান্তের কাঁটাতার পেরিয়ে এদেশেও ঢুকে পড়ল রাগ ইমন কল্যাণের সুরে কালজয়ী রচনা ‘আজ জানে কি জিদ না করো’। আটের দশকে সেই গানকেই নতুনভাবে গাইলেন ফরিদা খানুম। মজার বিষয় ফরিদাও শহর কলকাতার মেয়ে। ১৯২৯ সালে এই শহরেই জন্ম তাঁর। আবারও নতুন করে রচনা হল ইতিহাস। পথেঘাটে, হাটেবাজারে তামাম দুনিয়ার লোকের মুখে তখন একটাই গান– ‘আজ জানে কি জিদ না করো…’

এই গানের সুর ধরে অমর হয়ে রইলেন খানুম। কিন্তু কখন অজান্তে, ইতিহাসের পাতা থেকে কোথায় যেন হারিয়ে গেলেন সোহেল রানা, ফয়াজ হাশমিরা। আগ্রা মনে রাখেনি সোহেল রানাকে। একসময় যে গানের জন্ম এই শহর কলকাতায়, তার কাছেই বা কতটা সমাদর পেয়েছেন এই গানের গীতিকার? ২০১১ সালের ২৯ নভেম্বর করাচিতে যখন শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করলেন হাশমি, তখনও শুধুই বঞ্চনা আর অভিমানের পাহাড় নিঃশব্দে জমা রয়ে গেল কোথাও। শুধু পিছনে পড়ে রইল ‘আজ জানে কি জিদ না করো’-সহ কিছু কালজয়ী গান এবং সেগুলি ঘিরে প্রজন্মের পর প্রজন্ম চলতে থাকা কিংবদন্তির ক্যারাভান।

তারপর? শুনুন…

লেখা: প্রসেনজিৎ দাশগুপ্ত
পাঠ: কোরক সামন্ত
আবহ: শঙ্খ বিশ্বাস

পোল